এফিলিয়েট মার্কেটিং হল অন্য মানুষ বা কম্পানির কোন পন্য বিক্রয় করে দিয়ে, সেই বিক্রিত মূল্য থেকে একটা কমিশন নেওয়া । আরো সহজভাবে বললে এফিলিয়েট প্রোগ্রামটি হচ্ছে অন্য কোন কোম্পানীর হয়ে প্রচার করা। আসলে এফিলিয়েট মার্কেটিং আমাদের প্রচলিত মার্কেটিং এর মত হলেও এখানে কাজ করার ও আয় করার প্রচুর সুযোগ রয়েছে ।

ফিচারসমূহ

  • সম্পূর্ণ ক্লাশের ভিডিও করা হবে যেন ওই ক্লাসের উপর আরো বেশি করে এনালাইসিস করা যায়।
  • কোন প্রোগ্রামিং এর দরকার নেই। যার ফলে যে কেউই অংশগ্রহন করতে পারবে।
  • লাইভ প্রজেক্টে কাজ করার সুযোগ।
  • সতর্কতা ও সম্ভাবনা।
  • কিভাবে হয়ে উঠবেন নিজেই একজন সফল ব্যবসায়ী।

কারা অংশগ্রহন করতে পারবেন?

  • স্টুডেন্ট।
  • চাকুরীজীবী।
  • ব্যবসায়ী।
  • গৃহিণী।

যা যা লাগবে/পূর্ব প্রস্তুতি

  • ইংরেজি লিখতে এবং পড়তে যানতে হবে।
  • পরিশ্রম করার মনমানুষিকতা।
  • শিখার আগ্রহ।
  • ওয়েব সাইট এবং ইন্টারনেট সম্পর্কেও ধারনা।
  • ব্যাক্তিগত কম্পিউটার থাকলে ভাল।

যা যা লাগবে/পূর্ব প্রস্তুতি

  • এফিলিয়েশন মার্কেটিং কি? বিস্তারিত।
  • এফিলিয়েট মার্কেটিং এর নিয়ম সমুহ।
  • এফিলিয়েট মার্কেটিং এর মূলনীতি।
  • বিশ্বাস এবং মূল্য স্থাপন
  • উৎস এবং সনাক্তকরন সুযোগ
  • কিওয়ার্ড রিসাচা এবং এনালাইসিস
  • ওয়েবসাইট (ঐচ্ছিক)
  • সচেতনতা বৃদ্ধি
  • সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং
  • উপযুক্ত বিজ্ঞাপন লিখা
  • বিশ্লেষন এবং কনভার্সেশন
  • কনভার্শন অপটিমাইজেশন
  • পরিমাপ এবং বিশ্লেষণ

আমাদের এখানেই কেন?

  • অভিজ্ঞ শিক্ষক দ্বারা পরিচালিত হয় সবচাইতে ভাল শিক্ষাটা পাওয়া যায়।
  • শিক্ষার জন্য উপযুক্ত পরিবেশ রয়েছে ফলে ক্লাসে অধিক মনযোগী হওয়া যায়।
  • ক্লাসে প্রয়োজনীয় শীট ও ভিডিও টিওটরিয়াল প্রদান করা হয় যেটা প্রেক্টিস এর জন্য অধিক কার্যকরী।
  • অনলাইনে সেবা প্রদান করা হয়, ফলে বাসায় বসে ইন্টারনেট এর মাধ্যমে সকল প্রকার সেবা পাওয়া যাবে।
  • দূর্বলদের জন্য আলাদা ভাবে পরিচর্যা করা হয় ফলে তাদের দুর্বলতা কাটিয়ে উঠতে পারে।
  • ডোমেইন এবং হোস্টিং মেইনটেইনেন্স সম্পর্কে ধারনা দেয়া হয়।
  • কোর্স শেষে ক্লাইন্ট এর কাছ থেকে টাকা উত্তোলনের জন্য প্রয়োজনীয় সহায়তা করা হবে।
  • ক্লাসের সেরা স্টুডেন্টকে প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে ফ্রী ডোমেইন এবং হোস্টিং প্রদান করা হবে।
  • সার্বক্ষণিক দ্রুত গতির ইন্টারনেট ব্যাবস্থা রয়েছ।